কাশ্মীর - রাজনৈতিক অস্থিরতা, গণতন্ত্র ও জনমত

কাশ্মীর - রাজনৈতিক অস্থিরতা, গণতন্ত্র ও জনমত

Author: মিঠুন ভৌমিক
Publisher: গুরুচন্ডালি
Product Code: kraj021118
Availability: In Stock
Price: Rs.60
Qty:
   - OR -   

'কাশ্মীর' শব্দটি উচ্চারণ করলে, ঠিক তার পরেই যে শব্দটি মাথায় আসে, তা হল 'সমস্যা'। বছরের পর বছর ধরে 'কাশ্মীর সমস্যা ও তার সমাধানের উপায়' নিয়ে লক্ষ লক্ষ শব্দ উচ্চারিত হয়ে চলেছে সীমান্তের এপারে ও ওপারে। কিন্তু স্বাধীনতার পর সাতদশক ধরে কাশ্মীর নামের যে পুরোনো ঘা মাঝে মাঝেই বিষিয়ে উঠে উপমহাদেশের সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত, আতঙ্কিত ও বাস্তুচ্যুত করে চলেছে, তা নিছকই কোনো সমস্যা নয়, এক ঐতিহাসিক ও ভৌগোলিক বাস্তবতা, দেশভাগ ও তৎপরবর্তী ট্র্যাজেডির এক বহমান ধারাবাহিকতা। এক আংশিক সময়ের ইতিহাস পড়ুয়ার তরফ থেকে, এই বই সেই বাস্তবতাকে বোঝারই প্রচেষ্টা।
এই বই পন্ডিতদের জন্য নয়। কেতাবী আলোচনাচক্র অধিকাংশ সময়েই এক বা একাধিক ঘরানার যান্ত্রিকতায় পর্যবসিত হয়। এ তাবৎ কাল ধরে নানা ঘরানার দৃষ্টিকোণ থেকে কাশ্মীর নামক সমস্যাটিকে নিয়ে কথা হয়ে চলেছে নানা মাধ্যমে। এই ছোট্টো বইয়ের উদ্দেশ্য একটাই, সেসব ঘরানার বাইরে বেরিয়ে নৈর্ব্যক্তিক দৃষ্টিভঙ্গী থেকে সমস্যার বাস্তবতাটিকে উপস্থাপন করা। চরম নৈর্ব্যক্তিকতা, শেষ বিচারে হয়তো অসম্ভব। কিন্তু চালু ছক থেকে বেরোনোর প্রচেষ্টাটি একান্ত ভাবেই জরুরি।


কাশ্মীরের আখ্যান এক অদ্ভুত আখ্যান। "পার্স্পেক্টিভ একটা অদ্ভুত ব্যাপার। বেড়ার এপারে যে সন্ত্রাসবাদী, ওপারে সে দেশপ্রেমী। ওপারে যে দখলদার, এপারে সে বেনেভোলেন্ট প্রশাসক। কিন্তু কোথাও কি কোনো অবজেক্টিভিটির অবকাশ নেই? 
সম্ভবতঃ নেই। সম্ভবতঃ তা অবাস্তব, মতান্তরে অসম্ভব। জার্মান সাহেব নীটশে যেমন বলে গেছেন-'ঠেরে অরে নো ফ্ত্স,ওন্ল্য ইন্তের্প্রেতেতিওন্স'।হাওয়ার্ড জিন যেমন বলে গেছেন ঐতিহাসিকের অবজেক্টিভিটি অনুচিত, অসঙ্গত। অপরপক্ষে ইতিহাসকে পুরোপুরি সাবজেক্টিভিটি'র হাতে ছেড়ে দিলে যে কী মারাত্মক ফল হতে পারে, তার ভুক্তভোগী আমরা, আর এস এস ছায়ামন্ডিত - ভারতবাসীরা হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছি, আরো পাবো বলেই আশঙ্কা। আর টের পেয়েছিলেন নীটশের দেশের লোকেরা, তৃতীয় রাইখের পদানত জার্মান জাতি( বস্তুতঃ পৃথিবীর সর্বত্রই প্রবল, আধিপত্যকামী শাসকের ছায়ায় ঢাকা জনগণ এ সত্য টের পান অথবা পান না, পেতে চান না)। অতএব কোথাও একটা ব্যালান্সের প্রয়োজন অনস্বীকার্য-আদর্শ গ্যাসের মত আদর্শ অবজেক্টিভ ইতিহাস অসম্ভব জেনেও তার যথাসাধ্য কাছাকাছি পৌঁছোনোর একটা চেষ্টা।ইতিহাসচর্চার এই অবজেক্টিভিটি নিয়ে মিঠুন ভেবেছেন এবং এই বইটি জুড়ে মিঠুন তারই একটি প্রয়াস চালিয়ে গেছেন; সব্সময় সফল হয়েছেন কিনা তার উত্তর পাঠকরাই দেবেন। " 
ভূমিকায় লিখেছেন ইন্দ্রনীল ঘোষদস্তিদার।

Write a review Your Name:


Your Review: Note: HTML is not translated!

Rating: Bad           Good

Enter the code in the box below: